৫২ বাঙালির অধিকার আদায়ের উৎস : সিটি মেয়র

0
3

খুলনা প্রতিনিধি: খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সিটি মেয়র আলহাজ¦ তালুকদার আব্দুল খালেক বলেছেন, ’৫২ বাঙালি জাতি স্বত্বার বাতিঘর। ’৫২ বাঙালির অধিকার আদায়ের উৎস এবং শক্তির সুতিকাগার। বাংলা ভাষা আমাদের অস্তিত্ব, আমাদের আবেগ এবং গর্ব। আমাদের এই অস্তিত্ব আবেগ আর গর্বকে দীর্ঘদিন যাবৎ অবরুদ্ধ করেছিলো পাক শাসকেরা। বাঙালির এই অস্তিত্ব, আবেগ আর গর্ব যখন পাক শাসকেরা পদদলিত করছিলো। তখন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে বাঙালি জাতি অবরুদ্ধ আবেগের বিস্ফোরণ ঘটিয়েছিলো। তিনি আরো বলেন, বড় কোন অর্জন করতে হলে আত্ম ত্যাগের প্রয়োজন আছে। আত্ম ত্যাগ ছাড়া কোন সফলতা আসেনা। আর সফলতা আসলেও সেটির কোন স্থায়ী হয়না।তিনি দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, দেশ থেকে অপসাংস্কৃতি দুর করতে হবে। সেজন্যে বাঙালি সাংস্কৃতিকে সর্বত্রই ছড়িয়ে দিতে হবে। আমাদের প্রত্যেকটি কাজই হবে বাংলা এবং বাঙালি সাংস্কৃতিতে এই হোক ভাষা দিবসের অঙ্গিকার। রবিবার (২১ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ৮টায় খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ আয়োজিত আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও মহান শহীদ দিবসের আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। সভায় বক্তব্য রাখেন, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এমডিএ বাবুল রানা। খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ দপ্তর সম্পাদক মো. মুন্সি মাহবুব আলম সোহাগের পরিচালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, আওয়ামী লীগ নেতা বীরমুক্তিযোদ্ধা মকবুল হোসেন মিন্টু, বীরমুক্তিযোদ্ধা শ্যামল সিংহ রায়, এ্যাড. রজব আলী সরদার, অধ্যা. আলমগীর কবির, এ্যাড. খন্দকার মজিবর রহমান, এ্যাড. অলোকা নন্দা দাস, হাফেজ মো. শামীম, তসলিম আহমেদ আশা, অধ্যা. রুনু ইকবাল, এ্যাড. সুলতানা রহমান শিল্পী, রনজিত কুমার ঘোষ, মো. সফিকুর রহমান পলাশ, শেখ শাহজালাল হোসেন সুজন।এসময়ে উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামী লীগ নেতা মল্লিক আবিদ হোসেন কবীর, অধ্যক্ষ শহিদুল হক মিন্টু, আবুল কালাম আজাদ কামাল, জোবায়ের আহমেদ খান জবা, কামরুল ইসলাম বাবলু, প্যানেল মেয়র আলী আকবর টিপু, হালিমা ইসলাম, কাউন্সিলর মোসারাফ হোসেন, মো. মফিদুল ইসলাম টুটুল, মনিরুজ্জামান সাগর, এ কে এম শাহজাহান কচি, এস এম আসাদুজ্জামান রাসেল, মোস্তফা কামাল, বাবুল সরদার বাদল, মঈনুল ইসলাম নাসির, মাহাবুবুল আলম বাবলু, চৌধুরী মিনহাজ উজ্জামান সজল, নুর ইসলাম, এমরানুল হক বাবু, নজরুল ইসলাম তালুকদার, মো. শিহাব উদ্দিন, আতাউর রহমান শিকদার, আজম খান, ওয়াহিদুল ইসলাম পলাশ, ফয়েজুল ইসলাম টিটো, ইউসুফ আলী খান, আঞ্জুমানোয়ারা বেগম, আলেয়া সাঈদ, নূরীনা রহমান বিউটি, নুরজাহান রুমি, মনোয়ারা বেগম, মনোয়ারা বেগম, সাবিহা ইসলাম আঙ্গুর, রেকসোনা কালাম লিলি, কনিকা সাহা, স্বরণী ইসলাম সুইটি, আইরিন সুলতানা, নাছরিন আক্তার, রেখা খানম, সৈয়াদা হেনা বেগম, এ্যাড. রাবেয়া ওয়ালী করবী, আকবর আলী মাতুব্বর, মুন্সি নাহিদুজ্জামান, এ্যাড. আহসান হাবীব, শেখ আব্দুল কাদের, মিজানুর রহমান নাজু, মো. তোতা মিয়া, জব্বার আলী হীরা, জহির আব্বাস, ওমর কামাল, মো. শাহীন আলম সহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।এর আগে দিবসের প্রথম প্রহরে শহীদ হাদিস পার্কে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করা হয়। সকাল ৭টায় দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা অর্ধনমিত করণ এবং কালো পতাকা উত্তোলন, কালো ব্যাজ ধারন এবং বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে মাল্যদান করা হয়। পরে দলীয় কার্যালয় হতে প্রভাত ফেরি শুরু করে শহীদ হাদিস পার্কে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করা হয়। বিস্তারিত আসছে…

 

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে