৪৬, ৪৪ নাকি ৪১? জন্মদিনে আবারও বয়স বিতর্কে আফ্রিদি

2

ন্যাশনাল ডেস্কঃ শহীদ আফ্রিদি জন্মদিন উদযাপন করেছেন ০১ মার্চ (সোমবার)। সেই সঙ্গে আরেকবার বয়স বিতর্কে পড়লেন পাকিস্তানি অলরাউন্ডার।বছরের পর বছর ধরে, এমনকি তার শুভদিনেও, আফ্রিদির বয়স আলোচনার ‘হট টপিক’ হয়ে ওঠেছে ক্রিকেট সমর্থকদের কাছে। সোমবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আবারও সেই বিতর্ক উস্কে দিল আফ্রিদির টুইট। নিজের অফিসিয়াল টুইটার পেজে কী লিখেছেন আফ্রিদি? তেমন কিছু নয়। জন্মদিনে কেবল তার সমর্থক ও শুভাকাঙ্ক্ষীদের পাঠানো শুভেচ্ছার জন্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন তিনি। পাকিস্তানি অলরাউন্ডার নিজেই জানালেন, ০১ মার্চ তিনি ৪৪ বছর বয়সে পা রেখেছেন। কিন্তু তার অফিসিয়াল রেকর্ড বলছে অন্য কথা। আফ্রিদি লিখেছেন, ‘জন্মদিনে সবার সুন্দর শুভকামনার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ— আজ ৪৪ হলো! আমার পরিবার এবং সমর্থকরা আমার সবচেয়ে বড় সম্পদ। ’ নিজের বয়স ৪৪ দাবি করলেও, আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) রেকর্ডে আফ্রিদির জন্মসাল লেখা— মার্চ ০১, ১৯৮০। হিসেবে দাঁড়ায়, এখন ৪১ বছর বয়স তার। তবে পাকিস্তানি তারকার সেই টুইট বিশাল এক বিতর্কের ঢেউ তুলেছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। পাকিস্তানি সাংবাদিক দানিয়েল রাসুল এই ক্রিকেট সুপারস্টারকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি বয়স নিয়ে এমন লুকোচুরি ও অনৈক্যের জন্য খোঁচা দিয়ে লিখেছেন, ‘শুভ জন্মদিন শহীদ আফ্রিদি। ইএসপিএন ক্রিকইনফোতে আমরা তার বয়স পাচ্ছি ৪১, তার আত্মজীবনীতে লেখা ৪৬ এবং এখন পাচ্ছি ৪৪!’ তবে পাকিস্তানি অলরাউন্ডারের আরেক সমর্থক লিখেছেন, ‘উল্লেখ করার দরকার নেই। ৪১ বা ৪৪ যাই হোক, শহীদ আফ্রিদির বয়স কেবল একটি সংখ্যা!’আফ্রিদির পোস্টের নিচে আরেক সমর্থকের উত্তর, ‘সবাই জানে যে, ১৬ বছর বয়সে ১৯৯৬ সালে অভিষেক হয় তার। তিনি অসম্ভবকে সম্ভব করেছেন— মাত্র ২৫ বছর বয়সে ২৮ বছর বড় হয়ে। ’

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালে, আফ্রিদি জানান, আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে যখন অভিষেক হয় তার বয়স ১৬ নয়, ১৯ বছর। রেকর্ড বই অনুসারে, নাইরোবিতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওয়ানডেতে মাত্র ৩৭ বলে রেকর্ড ভাঙা সেঞ্চুরি করেন পাকিস্তানি অলরাউন্ডার। যা ওয়ানডেতে সবচেয়ে কম বয়সে সেঞ্চুরি করার রেকর্ড। ১৬ বছর বয়সে রেকর্ডটি গড়ে বিশ্ব ক্রিকেটে রাতারাতি আলোচিত হয়ে ওঠেন আফ্রিদি। পরে তার ‘গেম চেঞ্জার’ নামে আত্মজীবনীতে লেখেন, ‘আমি ছিলাম ১৯ বছরের, ১৬ নয়। আমার জন্ম ১৯৭৫ সালে। তাই হ্যাঁ, কর্তৃপক্ষ আমার বয়স ভুল লিখেছিল। ’