গুরুতর অসুস্থতা ৮০ শতাংশ কমাতে পারে করোনার টিকা

4

অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকা কিংবা ফাইজার-বায়োএনটেক টিকার যেকোনওটির এক ডোজ গ্রহণের পরই হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নেওয়ার ঝুঁকি ৮০ শতাংশের বেশি কমে যায়। পাবলিক হেলথ ইংল্যান্ডের (পিএইচই) সাম্প্রতিক এক বিশ্লেষণে বলা হয়েছে, টিকা গ্রহণের তিন বা চার সপ্তাহের মধ্যে মানব দেহে এর প্রভাব শুরু হয়। প্রথম ডোজ গ্রহণকারী ৮০ বছরের বেশি বয়সীদের তথ্য বিশ্লেষণ করে এসব তথ্য জানা গেছে। ব্রিটিশ বিজ্ঞানীরা এই ফলাফলের প্রশংসা করলেও জোর দিয়ে বলেছেন, সর্বোচ্চ সুরক্ষার জন্য দুই ডোজই গ্রহণ করা প্রয়োজন। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।সোমবার ডাউনিং স্ট্রিটে এক ব্রিফিংয়ে ব্রিটিশ স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাট হ্যানককম বলেছেন, টিকাগ্রহণের সাম্প্রতিক ফলাফল খুবই জোরালো। তিনি বলেন, গত কয়েক সপ্তাহে যুক্তরাজ্যে ৮০ বছরের বেশি বয়সীদের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে নেওয়ার পরিমাণ কেন কমে গেছে তা এই ফলাফল দিয়ে ব্যাখ্যা করা সম্ভব।ওই একই সংবাদ সম্মেলনে ইংল্যান্ডের ডেপুটি চিফ মেডিক্যাল অফিসার প্রফেসর জোনাথন ভ্যান-ট্যাম বলেন, ‘আগামী কয়েক মাসের মধ্যে আমাদের এক ভিন্ন দুনিয়ায় নিয়ে যাওয়ার আশা যোগাচ্ছে এই ফলাফল।’ তবে তিনি বলেন, টিকার পূর্ণ ডোজ গ্রহণ করা এখনও খুবই গুরুত্বপূর্ণ।যুক্তরাজ্যের দুই কোটিরও বেশি মানুষ ইতোমধ্যে করোনাভাইরাসের টিকার প্রথম ডোজ গ্রহণ করেছেন। এর তিন ভাগের এক ভাগই প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ। এদিকে নতুন হিসেবে দেখা গেছে ২৮ দিনের মধ্যে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়ে নতুন করে মৃত্যু হয়েছে ১০৪ জনের। আর নতুন করে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে পাঁচ হাজার ৪৫৫ জনের।