ধনঞ্জয়ার হ্যাটট্রিক ছাপিয়ে পোলার্ডের টানা ছয় ছক্কায় সাফল্য

6

ক্রীয়া ডেস্ক: শ্রীলঙ্কার দেওয়া ১৩১ রান তাড়া করতে নেমে কী বিপদেই না পড়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ইনিংসের চতুর্থ ওভারে আকিলা ধনঞ্জয়া হ্যাটট্রিক করে চেপে ধরেছিলেন স্বাগতিকদের। কিন্তু এই স্পিনারের পরের ওভারেই তা ছাপিয়ে যান কিয়েরন পোলার্ড। ওই ছয় বলে ৬ ছক্কায় সাফল্য খুব সহজে ধরা দিলো ক্যারিবিয়ানদের। ৪১ বল হাতে রেখে ৪ উইকেটে জিতে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে ১-০ তে এগিয়ে গেলো তারা।অ্যান্টিগার কুলিজ ক্রিকেট গ্রাউন্ডে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ২০ রানে ওপেনার দানুশকা (৪) গুনাথিলাকাকে হারায় শ্রীলঙ্কা। নিরোশান ডিকবেলা ও পাথুম নিশানকার ৫১ রানের জুটিতে ঘুরে দাঁড়ায় তারা। কিন্তু ১২ রানের ব্যবধানে দুজনের বিদায়ের পর পুঁজি বাড়াতে পারেনি লঙ্কানরা। ডিকবেলা ৩৩ ও পাথুম ইনিংস সেরা ৩৯ রানে আউট হন। ৯ উইকেটে ১৩১ রানে থামে শ্রীলঙ্কা।ওবেদ ম্যাককয় ২ উইকেট নিয়ে ক্যারিবিয়ানদের পক্ষে সেরা বোলিং করেন। এছাড়া একটি করে উইকেট নেন কেভিন সিনক্লেয়ার, জেসন হোল্ডার, ফিদেল এডওয়ার্ডস, ডোয়াইন ব্রাভো ও ফ্যাবিয়ান অ্যালেন।প্রায় দুই বছর পর টি-টোয়েন্টি খেলতে নামেন ক্রিস গেইল। কিন্তু নামের প্রতি সুবিচার করতে পারেননি তিন নম্বরে নেমে। লেন্ডল সিমন্সের সঙ্গে ৫২ রানের জুটি গড়ার পর ধনঞ্জয়ার বলে বিদায় নেন এভিন লুইস। চতুর্থ ওভারের দ্বিতীয় বলে ২৮ রান করে গুনাথিলাকার ক্যাচ হন ক্যারিবিয়ান ওপেনার। ক্রিজে নামেন গেইল, প্রথম বলেই এলবিডাব্লিউ হন টি-টোয়েন্টির বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান।পরের বলে নিকোলাস পুরানকে উইকেটের পেছনে ডিকবেলার ক্যাচ বানিয়ে তৃতীয় লঙ্কান হিসেবে হ্যাটট্রিক করেন ধনঞ্জয়া। স্কোর ৫২ রান থাকতেই নেই ৩ উইকেট। পরের ওভারে ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা ২৬ রানে লেন্ডল সিমন্সকেও বিদায় করেন ২৬ রানে।৬৪ রানে ৪ উইকেট হারানোয় কোনও চাপই নেননি ধনয়ঞ্জয়ার হ্যাটট্রিকের পর ক্রিজে নামা পোলার্ড। ইনিংসের ষষ্ঠ ওভারে প্রথম বলে লং অনের ওপর দিয়ে মারেন ছয়। পরের বলে সাইট স্ক্রিনের দিকে ছক্কা হাঁকান। তৃতীয় ছক্কাটি যায় লং অফের ওপর দিয়ে। এরপর ডিপ মিডউইকেট, লং অন ও মিড উইকেট দিয়ে ছয় মেরে যুবরাজ সিংয়ের কীর্তিতে ভাগ বসান পোলার্ড। মাত্র ৬.৪ ওভারে স্কোর ১০১ রান এনে দিয়ে মাঠ ছাড়েন তিনি। ১১ বলে অধিনায়কের ৩৮ রানের ইনিংসে ছিল ওই ছয়টি ছক্কাই।পরে হোল্ডার ২৪ বলে ২৯ রানে অপরাজিত থেকে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন। তার সঙ্গে ৪ রানে অন্য প্রান্তে অপরাজিত ছিলেন ব্রাভো। ১৩.১ ওভারে ৬ উইকেটে ১৩৪ রান করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।ধনঞ্জয়া ৪ ওভারে ৬২ রান দিয়ে নেন ৩ উইকেট। সমান উইকেট পান হাসারাঙ্গা।