খুলনায় রড-সিমেন্টের অস্বাভাবিক দাম বৃদ্ধি

8

খুলনা প্রতিনিধি:খুলনায় অস্বাভাবিকহারে রড ও সিমেন্টের দাম বেড়েছে। ব্যক্তি মালিকানাধীন ভবন তৈরিতে হিমশিম খাচ্ছে মালিকরা। সরকারি ও স্বায়ত্ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠানগুলোর উন্নয়ন কাজের ব্যয় বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।ব্যবসায়ীদের কাছে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত দুই মাস আগে বিভিন্ন ব্রান্ডের সিক্স গ্রেডের রড প্রতি টন গড়ে ৬২ হাজার টাকা দরে বিক্রি হয়। এখন সেই রড বিক্রি হচ্ছে গড়ে ৭০ থেকে ৭১ হাজার টাকা টন। অর্থাৎ দুই মাসের ব্যবধানে প্রতি টন রডের দাম বেড়েছে ১০ থেকে ১২ হাজার টাকা। অপরদিকে বেড়েছে সিমেন্টের দামও। দুই মাস আগে যে সিমেন্ট বিক্রি হয়েছে ৩৮৫ টাকা প্রতি বস্তা, এখন তার দাম ৪২০ থেকে ৪৩০ টাকা।রূপসা উপজেলার কাজদিয়া গ্রামের বাসিন্দা জাফর শেখ জানান, গত দু’দিন আগে নির্মাণ কাজের জন্য রড-সিমেন্ট কিনতে গিয়েছিলাম, কিন্তু পারিনি। সব কিছুর দাম বেড়েছে। “এব্যাপারে রূপসা উপজেলার কাজদিয়া বাজারের জে. কে ট্রেডার্সের সত্বাধিকারি জুলফিকার আলি বলেন, আমরা যে দামে রড ও সিমেন্ট কোম্পানির কাছ খেকে ক্রয় করি। তার থেকে সামান্য লাভে সেগুলো বিক্রি করে থাকি।” এটা শুধু গ্রামাঞ্চলের চিত্র নয়, নগরেও একই পরিস্থিতি। খুলনা নগরীর বিভিন্ন এলাকায় যারা বাড়ির নির্মাণ কাজ শুরু করেছেন, তারাও পড়েছেন বিপাকে।প্রথম শ্রেণীর ঠিকাদার শাহাজাহান কবির প্যারিশ বলেন, “নির্মাণ সামগ্রির দাম বেড়ে গেলে সাইটের কাজ বন্ধ হয়ে যায়। বর্তমানে প্রতি বস্তা ৩০ টাকা বেশি দিয়ে সিমেন্ট কিনতে হচ্ছে। রড টনে ১০ থেকে ১২ হাজার টাকা বেশি দিয়ে কিনতে হচ্ছে। আমরা আমাদের কাজের সাইটে বি’ফর্ম রড ব্যবহার করে থাকি। রড-সিমেন্টের দাম বেড়ে যাওয়ার পরেও আমরা সরকারের উন্নয়নমূলক কাজ চালিয়ে যাচ্ছি।”আরও কয়েকজন ঠিকাদারের সাথে কথা বলে জানা গেছে, রড় সিমেন্টের দাম এভাবে বাড়লে নির্মাণ কাজ আগের রেটে অব্যাহত রাখা কঠিন হয়ে দাঁড়াবে। সেক্ষেত্রে ব্যয় বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।রডের দাম বৃদ্ধি প্রসঙ্গে বিএসআরএম খুলনা অফিসের রিজিয়ন ইনচার্জ কাজি নাজমুল হক বলেন, এটা আমাদের কোম্পানি জানে। তবে যতটুকু জেনেছি, মার্কেটে ইস্পাতের দাম বেড়ে গেছে।সিমেন্টের দাম বৃদ্ধির ব্যাপারে সেভেন রিংস সিমেন্ট খুলনা অফিসের মার্কেটিংয়ের দায়িত্বে থাকা মোঃ জাহাঙ্গীর বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই। দাম বেড়েছে, কেউ কেউ বৃদ্ধি করেছে। আবার অনেকেই বাড়ানোর পর্যায়ে আছে। সবাই দাম বৃদ্ধি করেনি। আমাদের সেভেন রিংস সিমেন্টে একটা অফার ছিল সেটা উঠিয়েছে। কিছু কোম্পানি বলছে ৫০ টাকা দাম বৃদ্ধি। তবে কারণ কী, সেটা বলতে পারবো না। পত্রিকায় দেখলাম আন্তর্জাতিক বাজারে সিমেন্ট তৈরির দ্রব্যের দাম বেড়েছে।