সাতক্ষীরায় স্বামীর সম্পত্তি উদ্ধার পূর্বক বসতবাড়িতে ফেরার দাবিতে বিধবা নারীর সংবাদ সম্মেলন

8

লিংক বি ডি ২৪ ডেস্ক : প্রভাবশালী কর্তৃক জোরপূর্বক পৈত্রিক সম্পত্তি দখলের উদ্দেশ্য এক বিধবা মহিলাকে মারপিট ও বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ করে কালিগঞ্জ উপজেলার মৌতলা গ্রামের মৃত ইব্রাহিম শেখের স্ত্রী খোদেজা খাতুন এই অভিযোগ করেন। লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, কালিগঞ্জ উপজেলার মৌতলা মৌজার ডিএস ১৩২৮ নং খতিয়ানে ২৯৫৫ ও ২৯৫৬ দাগে ৪১ শতক জমির মধ্যে ২২ শতক জমির প্রকৃত মালিক আমার প্রায়ত শশুর আব্দুল মাজেদ। তার ওয়ারেশ সূত্রে উক্ত জমির বৈধ মালিক আমার স্বামী ইব্রাহিম শেখসহ তার চার ভাই। অসুস্থ্যতার কারনে আমারস্বামী মারা যান। তারপর থেকেও উক্ত সম্পত্তিতে থাকা বসতবাড়িতে সন্তানদের নিয়ে শান্তিপূর্ন ভাবে বসবাস করে অসছি। খোদেজা খাতুন অভিযোগ করে বলেন, সম্প্রতি আমার ভাসুর অহিদুজ্জামান তার ভাগের অড়াই শতক জমি মৃত কলিমুদ্দিনের ছেলে শাহাজানের কাছে বিক্রি করেন। কিন্তু মাত্র আড়াই শতক জমি ক্রয় করলেও শাহাজান গংরা অবৈধভাবে আমাদের পুরো ১৮ শতক জমি জোরপূর্বক দখলের চক্রান্ত করতে থাকে। একপর্যায় ২০১৯ সালের ২৭ জুন শাহাজান, জেবুন্নেছা বেগম, শাহাজানের ছেলে জাকির, মুন, ছন, স্কাই, জাবির অস্ত্র শস্ত্রে সজ্জিত হয়ে হামলা চালিয়ে আমাকে সহ আমার স্বামীর অন্যান্য ভাইদেরকে মারপিট করে গুরুতর জখম করে। উক্ত সম্পত্তি নিয়ে আদালতে মামলা করলে আদালত আমাদের পক্ষে রায় দেয়। এছাড়া এবিষয়ে সাতক্ষীরা পুলিশ সুপারসহ বিভিন্ন দপ্তরে একাধিকবার অভিযোগ দিলেও কোন কাজ হয়নি। অবৈধ প্রভাব খাটিয়ে শাহাজান গংরা জোরপূর্বক ভোগ দখল করে যাচ্ছেন। তিনি আরো বলেন, এসব ঘটনার পরই শাহাজান গংরা আমার বাড়ি ঘর ভাংচুর করে আমাকে স্বামীর ভিটা থেকে তাড়িয়ে দেয়। এর পর থেকে সন্তানদের নিয়ে আমি পথে পথে ঘুরে বেড়াচ্ছি। নিজের স্বামীর ভিটায় ফিরতে আদালত থেকে শুরু করে বিভিন্ন উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করেও ব্যর্থ হয়েছি। আমি বিধবা নারী হওয়ায় উল্লেখিতরা ক্ষমতার অপব্যবহার করে পৈত্রিক সম্পত্তি থেকে আমার সন্তান ও আমাকে বঞ্চিত করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। আমরা যাতে আর ওই সম্পত্তিতে যেতে না পারি সেজন্য শাহাজান গংরা প্রকাশ্যে খুন জখম সহ মিথ্যে মামলায় জড়িয়ে আমাদেরকে হয়রানি করার হুমকি ধামকি দিয়ে যাচ্ছে। আমি জীবনের ভয়ে সন্তানদের নিয়ে স্বামীর ভিটা ছাড়া হয়ে পথে পথে ঘুরে বেড়াচ্ছি। তিনি উল্লেখিত জবর দখলকারির কবল থেকে স্বামীর সম্পত্তি উদ্ধার পূর্বক বসতবাড়িতে ফিরে সন্তানদের নিয়ে যাতে সেখানে শান্তিপূর্নভাবে বসবাস করতে পারেন তার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেন।