ফুলহ্যামকে হারিয়ে শীর্ষস্থান মজবুত করলো ম্যানসিটি

4

খেলা: প্রথমার্ধে রক্ষণদুর্গ অক্ষত রেখেও হার এড়াতে পারলো না ফুলহ্যাম। দ্বিতীয়ার্ধে করা তিন গোলে প্রত্যাশিত জয় পেলো ম্যানচেস্টার সিটি। ইপিএলে ফুলহ্যামকে ৩-০ গোলে হারিয়েছে সিটিজেনরা। এ জয়ে টেবিলের শীর্ষস্থান আরো মজবুত হলো পেপ গার্দিওলার দলের। এদিকে, লা লিগায় গেতাফের বিপক্ষে গোলশূন্য ড্র করে পয়েন্ট খুইয়েছে অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ।ঘরের মাঠে হোক কিংবা ফুলহ্যামের মাঠে হোক। এর আগে গেলো ৭ ম্যাচে দলটির বিপক্ষে একবারও হারেনি ম্যানচেস্টার সিটি। এবারো সেই আত্মবিশ্বাস নিয়েই ফুলহ্যামের মাঠে আতিথ্য নেয় সিটিজেনরা।ম্যাচে শুরু থেকেই আধিপত্য দেখায় ম্যান সিটি। একের পর এক আক্রমণ চালায় ফুলহ্যাম শিবিরে। কিন্তু ঘরের মাঠে এ যেনও অন্য এক ফুলহ্যাম। বুঝে গিয়েছিলো আক্রমণ দিয়ে অন্তত কাবু করা যাবেনা সিটিজেনদের। তাই পূর্ণ মনোযোগ দিয়েছে রক্ষণভাগে। ম্যানসিটি যতবারই আক্রমণ চালিয়েছে; প্রত্যেকবার ব্যর্থ হয়েছে ফুলহ্যামের শক্ত রক্ষণদুর্গের কাছে। ফলে প্রথমার্ধে থাকে গোলশূন্য।

বিরতির পর ফিরে এসে আক্রমণে ধার বাড়ায় ম্যানসিটি। পরে ২ মিনিটের মাথায় পায় গোলের দেখা। চ্যান্সেলোর অ্যাসিস্টে স্টোনস লিড আনেন সিটির হয়ে। এরপর ম্যাচের ৫৬ মিনিটে লিড দ্বিগুণ করে সিটিজেনরা। এবার নিজের একক নৈপুণ্যে দুর্দান্ত এক গোল করে ফুলহ্যামের জাল কাঁপান ব্রাজিলিয়ান ফুটবলার গ্যাব্রিয়েল জেসুস। তাতে ম্যান সিটির স্কোর দাঁড়ায় ২-০। স্বস্তি ফেরে সিটি শিবিরে।২ গোল খেয়ে দিশেহারা ফুলহ্যাম ভুল করে বসে ম্যাচের ৫৯ মিনিটে। ফুলহ্যাম ডিফেন্ডার আদারাবিওইয়ো ম্যান সিটির ফেরান তোরেসকে ডিবক্সে ফেলে দিলে পেনাল্টি পায় অতিথিরা। তাতেই গোল করে আর্জেন্টাইন ফুটবলার অ্যাগুয়েরো ৩-০ তে এগিয়ে নেন সিটিকে।ম্যাচে পরে আর ফেরা হয়নি ফুলহ্যামের। বাকিটা সময় বল দখল নিয়েই ব্যস্ত থাকে দু’দল। ফলে প্রত্যাশিত জয় নিয়ে ঘরে ফেরে পেপ গার্দিওলার দল। এ জয়ে ৭১ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষস্থান আরো মজবুত হলো ম্যান সিটির।

এদিকে, স্প্যানিশ লিগে গেতাফের মাঠে আতিথ্যটা ভালো হয়নি অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদের। গোলশূন্য ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছে রোজি ব্লাঙ্কোদের। ড্র করেও ৬৩ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে অবস্থান করছে সিমিওনের দল।