শাল্লার ঘটনায় প্রধান আসামিসহ গ্রেফতার ৩৩

4

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি: সুনামগঞ্জের শাল্লা উপজেলার হবিবপুর ইউনিয়নের নোয়াগাঁও গ্রামের হিন্দুপল্লীতে হামলার ঘটনায় আরও ৩ আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ নিয়ে দুটি মামলায় মোট ৩৩ জন আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। প্রধান আসামি স্বাধীন মেম্বারকে শনিবার (২০ মার্চ) ভোরে মৌলভিবাজার জেলার কুলাউড়া উপজেলার একটি গ্রাম থেকে আটক করেছে পিবিআই। এদিকে রোববার (২১ মার্চ) ৩ জন আসামিকে দিরাই ও শাল্লা উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে অভিযান চালিয়ে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। শাল্লা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাজমুল হক বলেন, গত রাতে (শনিবার দিবাগত রাত) পুলিশ অভিযান চালিয়ে মামলার ৩ আসামিকে গ্রেফতার করেছে। এখন পর্যন্ত এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত ৩৩ জন আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

উল্লেখ্য, নোয়াগাঁও গ্রামের যুবক ঝুমন দাস হেফাজত ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব আল্লামা মামুনুল হককে কটূক্তি করে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয়ার অভিযোগকে কেন্দ্র করে গত ১৭ মার্চ সকালে নোয়াগাঁও গ্রামের হিন্দুপল্লীতে ব্যাপক ভাঙচুর ও লুটপাট চালানো হয়। এতে ৮৯টি পরিবারের বসতঘর ও ৭টি পারিবারিক মন্দির ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এ ঘটনায় শাল্লা থানায় পুলিশ বাদী হয়ে একটি ও গ্রামের বাসিন্দা হবিবপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বিবেকানন্দ বকুল বাদী হয়ে শাল্লা থানা আরও একটি মামলা দায়ের করেন।

ঘটনার পর র‌্যাবের মহাপরিচালক, বিভাগীয় কমিশনার, ডিআইজি, পুলিশ সুপার, জেলা প্রশাসক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। ক্ষতিগ্রস্তদের মধ্যে আর্থিক সহযোগিতাসহ ঢেউটিন বরাদ্দ প্রদান করেন।

নোয়াগাও গ্রামের মানুষের নিরাপত্তার জন্য নোয়াগাঁও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে র‌্যাব ও পুলিশের অস্থায়ী ক্যাম্প স্থাপন করা হয়েছে।

গ্রেফতার ৩ আসামিকে শাল্লা থানা হাজতে ও বাকি আসামিরা সুনামগঞ্জ জেলা কারাগারে রয়েছে।