থমকে গেছে পুরো মিয়ানমার, নীরব ধর্মঘটে বিক্ষোভকারীরা

3

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: মিয়ানমারে বিক্ষোভ থামাতে নির্বিচার গুলি চালাচ্ছে মিয়ানমার সামরিক বাহিনী। বিক্ষোভ থামাতে বিভিন্ন ধরনের পদক্ষেপ নিচ্ছে তারা। তবে পরিস্থিতি বুঝে বিক্ষোভের ধরন পাল্টাচ্ছে বিক্ষোভকারীরা।অভিনব ও নতুন নতুন বিক্ষোভ পরিকল্পনার সর্বশেষ ধরন ‘নীরব ধর্মঘট’। বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, বুধবার মিয়ানমারের গণতন্ত্রপন্থি বিক্ষোভকারীরা বিক্ষোভের আরও পরিকল্পনা করেছেন। ‘নীরব ধর্মঘট’ অর্থাৎ ‘অল শাটডাউন’ করবেন তারা। ঘর থেকে বের হবেন না, কোনো ধরনের ব্যবসার সঙ্গে জড়াবেন না, ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানও বন্ধ রাখবেন। ইতোমধ্যে জনসাধারণকে তারা ঘরে থাকার আহ্বানও জানিয়েছেন।গত ১ ফেব্রুয়ারি অভ্যুত্থানের পর এ পর্যন্ত প্রায় ২৬১ জন প্রাণ হারিয়েছেন নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে। তাতেও বিক্ষোভকারীদের পিছু নামাতে পারেনি। এরই মধ্যে মঙ্গলবার নিজের ঘরে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে একটি সাত বছরের শিশু মারা যাওয়ার পর বিকল্প কৌশল নিয়েছে বিক্ষোভকারীরা। বুধবার একজন বিক্ষোভকারী রয়টার্সকে জানান , ‘নো গোয়িং আউট, নো শপ, নো ওয়ার্কিং। অল শাটডাউন। জাস্ট ফর ওয়ান ডে’। অর্থাৎ গণতন্ত্রপন্থিদের বুধবারের নীরব বিক্ষোভ বাস্তবায়ন হবে ‘বাইরে বের না হয়ে, দোকানে না গিয়ে, কোনো কাজ না করে, সবকিছু বন্ধ রেখে, তবে সেটা একদিনের জন্য’।
নোবেলজয়ী নারী অং সান সু চির নেতৃত্বে নির্বাচিত সরকারকে গত ১ ফেব্রুয়ারি ক্ষমতাচ্যুত করার পর দক্ষিণ-পূর্ব এশীয় দেশটি চরম সংকটের মধ্যে পড়েছে। দেশটিতে সেনা অভ্যত্থানের পর থেকেই এর বিরুদ্ধে গণতন্ত্রপন্থিদের বিক্ষোভ চলছে। প্রায় প্রতিদিনই পুলিশের গুলিতে বিক্ষোভকারীদের প্রাণ যাচ্ছে।