শ্যামনগরে প্রেম ঘটিত কারনে হামলা;মন্দির ভাংচুর

9
শ্যামনগর প্রতিনিধি:  শ্যামনগর উপজেলার মুন্সিগঞ্জ ফুলতলায় দুর্বৃত্তদের হামলায় রাস মন্দির ও শীতলা মন্দিরের প্রতিমা ভাংচুর এবং সুভাষ বাউলিয়া ও নগেন্দ্র বাউলিয়া ঘর ভাংচুর লুটপাট সহ আহত ১২/১৩ জন। ১৩ ই এপ্রিল মঙ্গলবার আনুমানিক সন্ধ্যা ৭ টায় দিয়ে এই হামলার ঘটনা ঘটে। হামলার শিকার সুভাষ বাউলিয়ার স্ত্রী পূর্ণিমা বাউলিয়া বলেন,প্রেম ঘটিত বিষয় নিয়ে উত্তর কদমতলা গ্যারেজ এলাকার শ্রীপদ মন্ডলের পু্ত্র পল্লব মন্ডল (১৯) এই ঘটনা ঘটায়। তিনি বলেন, পল্লব এক মেয়েকে নিয়ে বিলের ভীতরে গল্প করছিলো সেই ঘটনা মিলন লোক জনকে বলে দেয় । এতে পল্লব ক্ষিপ্ত হয়ে ৭/৮ টি মটর সাইকেলে লোকজন নিয়ে এসে সন্ধ্যায় আমাদের ওপর হামলা চালায়। আমরা ভয়ে পলাই তখন আমাদের না পেয়ে দরজা ভেঙে আমাদের দুই মেয়েকে তুলে নিয়ে যাওয়ার জন্য হাত ধরে টেনে হিচড়ে ঘরের বাইরে বের করতে থাকে, তখন ছোট মেয়ে ভয়ে চিৎকার করলে ওর বাবা,কাকারা আর পলিয়ে থাকতে পরেনি। মেয়েদের বাঁচতে তারা বাইরে বেরিয়ে আসে আর তখনই ইট ছুড়ে মারতে থাকে সাথে লাটিশোটা নিয়ে আমাদের সবাই কে বেধর মার মারে এবং তার দলবল ঘরে থাকা টিভি, ল্যাপটপ, মোবাইল সাইকেল সহ সোনা গহনা সব নিয়ে যায়। এবং ঘড় পুড়িয়ে দেয়ার জন্য আগুন জ্বালিয়ে দেয়, আর কিছু লোক তাদের তাড়া করে মন্দিরে নিয়ে গিয়ে প্রতিমা ভাংচুর করে। তাছাড়াও আমার মেয়ের নাকে কানের গলার গহনা নিয়ে যায়। তারা আরও বলেন এই ঘটনা আজগর মেম্বার দাড়িয়ে থেকে লীড দেয়। কিন্তু আজগর মেম্বরের মোবাইল বন্ধ থাকায় তার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি। এঘটনা সাবেক এক মেম্বর বলেন, আজগর মেম্বর থেকে লিড দিয়ে আলীম বাহিনীর এই হামলা করে। আহতরা হলেন উত্তর কদম তলা গ্রামের মৃত ফনিন্দ্র বাউলিয়া পুত্র নগেন্দ্রনাথ বাউলিয়া (৭০), তপন বাউলিয়া (৬০), নগেন্দ্র নাথ বাউলিয়ার তিন পুত্র সুভাষ বাউলিয়া (৫০), যতিন বাউলিয়া (৪০), গোবিন্দ বাউলিয়া (৪৫),যতিন বাউলিয়ার স্ত্রী কৌশল্যা বাউলিয়া (৩৫) , সুভাষ বাউলিয়ার স্ত্রী পূর্ণিমা বাউলিয়া(৪৫), কন্যা মমতা বাউলিয়া (১৮),পুত্র মিলন বাউলিয়া ( ১৯) যতিন্দ্র বাউলিয়া কন্যা বিজলী বাউলিয়া (১১) , গোবিন্দ বাউলিয়া পুত্র নিত্যানন্দ বাউলিয়া (১৬)। কয়েক জনের মারাক্তক আহত হওয়ার কারনে শ্যামনগর হসপিটালে ভর্তি রয়েছে। শ্যামনগর থানার অফিসার ইনচার্জ নাজমুল হুদা বলেন, আমরা ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেছি, এবং খুব দ্রুতই এই ঘটনার সাথে জড়িত দের গ্রেপ্তার করা হবে।