অভিনেত্রী স্বর্ণা প্রতারণার মামলায় রিমান্ডে

10

ন্যাশনাল ডেস্ক: প্রতারণার মাধ্যমে সৌদি আরব প্রবাসীর কাছ থেকে অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে গ্রেপ্তার মডেল ও অভিনেত্রী রোমানা স্বর্ণাকে একদিনের রিমান্ড দিয়েছেন আদালত। আজ মঙ্গলবার ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মামুনুর রশিদ রিমান্ডের এই আদেশ দেন।আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কমকর্তা (জিআরও) মনিরুজ্জামান মনির এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আজ ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির হয়ে স্বর্ণাকে সাত দিন রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করেন। সেই আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিচারক একদিন রিমান্ডে নেওয়ার আদেশ দেন। আসামি স্বর্ণা কারাগার থেকে ভার্চুয়ালি রিমান্ড শুনানিতে অংশ নেন।এর আগে গত ১২ মার্চ স্বর্ণাসহ তিনজনকে গ্রেপ্তারের পরে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করা হলে তদন্ত কর্মকর্তা পাঁচ দিন রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করে পুলিশ। এরপরে তাদের আইনজীবী রিমান্ড বাতিল করে জামিনের আবেদন করেন। শুনানি শেষে বিচারক রিমান্ডের আবেদন বাতিল করে আসামিদের কারাফটকে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ দেন।নথি থেকে জানা গেছে, প্রতারণার শিকার জুয়েল সৌদি আরব থেকে দেশে ফিরে গত ১০ মার্চ স্বর্ণাসহ তিনজনের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির ৪২০/৪০৬ ধারায় মোহাম্মদপুর থানায় মামলা করেন। এরপরে ১১ মার্চ বিকেলে রাজধানীর লালমাটিয়ার সি ব্লকের একটি বাসা থেকে রোমানা স্বর্ণাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরে তাঁর দুই সহযোগী মামলার আসামি আশরাফি আক্তার শেলী ও আন্নাফি ইউসুফ ওরফে আনানকে গ্রেপ্তার করা হয়।এজাহার থেকে জানা গেছে বাদী জুয়েল ও আসামি স্বর্ণার মধ্যে ফেসবুকে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। জুয়েলের অভিযোগ, সম্পর্ক শুরুর পর থেকে স্বর্ণা বিভিন্ন সময় নানা অজুহাতে তাঁর কাছ থেকে টাকা নিতেন। একপর্যায়ে তাঁরা বিয়েও করেন। বিয়ের পর ফ্ল্যাট কেনার টাকাও নিয়েছেন স্বর্ণা। এভাবে এক কোটি ৭৮ লাখ ৬০ হাজার টাকা নিয়েছেন বলে বাদীর দাবি। সর্বশেষে জুয়েলকে ডিভোর্স দেওয়ার কথা বলা হয়। এর আগে আবার জুয়েলের আপত্তিকর ছবি তুলে তা নিয়ে ব্ল্যাকমেইলও করার চেষ্টা করা হয়েছে বলে জুয়েল দাবি করেন। তারপর তিনি মামলা করেছেন।২০০৬ সালের শেষের দিকে মডেলিংয়ের মাধ্যমে শোবিজে নাম লেখান রোমানা স্বর্ণা। টিভি পর্দার এই অভিনেত্রী সিনেমাতেও অভিনয় করেছেন। ২০১৫ সালে তন্ময় তানসেনের ‘পদ্ম পাতার জল’ এবং ২০১৬ সালে একই পরিচালকের ‘রান আউট’ সিনেমায় অভিনয় করেন তিনি।