সাতক্ষীরায় করোনায় আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে তিন বৃদ্ধের মৃত্যু

10

লিংক বিডি ২৪ ডেস্ক: করোনায় আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ (সামেক) হাসপাতালে সাড়ে ১৭ ঘন্টার ব্যবধানে তিন জনের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার বেলা ২টা থেকে রোববার সকাল সাড়ে ৭ টার মধ্যে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাদের মৃত্যু হয়। এদের মধ্যে দু’জন করোনা আক্রান্ত হয়ে ও অপর একজন উপসর্গ নিয়ে মারা যান।

করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত ব্যক্তিরা হলেন, মাদারীপুর জেলার পাকদী এলাকার এরফানের ছেলে এনায়েত হোসেন (৬২) ও সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার পাতাখালী গ্রামের মৃত মোসলেম উদ্দিনের ছেলে মোবারক আলী (৮০) এবং করোনার উপসর্গ নিয়ে মৃত ব্যক্তি হলেন দেবহাটা উপজেলার পারুরিয়া গ্রামের মৃত গহর আলীর ছেলে ইউসুফ আলী (৬৫)।মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, করোনা আক্রান্ত হয়ে গত ২২ এপ্রিল এনায়েত হোসেন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা পজিটিভ ইউনিটে ভর্তি হন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার বেলা ২ টার দিকে তিনি মারা যান।

এদিকে জ্বর, সর্দি, কাশি, শ্বাসকষ্টসহ করোনার নানা উপসর্গ নিয়ে গত ২২ এপ্রিল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফ্লু কর্নারে ভর্তি হন দেবহাটার পারুলিয়া গ্রামের ইউসুফ আলী (৬৫)। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে তিনি মারা যান। তার নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য সামেক হাসপাতালের আরটি পিসিআর ল্যাবে পাঠানো হয়েছে।

অপরদিকে সর্দি, কাশি, শ্বাসকষ্টসহ করোনার নানা উপসর্গ নিয়ে গত ১৯ এপ্রিল সামেক হাসপাতালের ফ্লু কর্ণারে ভর্তি হন শ্যামনগর উপজেলার পাতাখালী গ্রামের মোবারক আলী। পরে নমুনা পরীক্ষা করে তার করোনা পজেটিভ আসে। এসময় তাকে করোনা পজিটিভ ইউনিটে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রোববার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে তিনি মারা যান।

এনিয়ে, করোনায় আক্রান্ত হয়ে ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত মারা গেছেন মোট ৪২ জন। আর ভারাসটির উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন আরো অন্ততঃ ১৬১ জন।সাতক্ষীরার সিভিল সার্জন ডাঃ হুসাইন শাফায়েত বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, স্বাস্থ্যবিধি মেনে মৃত ওই ব্যক্তিদের লাশ দাফনের অনুমতি দেয়া হয়েছে।