সেমির লড়াইয়ে পিএসজি-ম্যানসিটি

2

ফাইনালের আগে আরেক ফাইনাল। সেমিফাইনালের প্রথম লেগে গতবারের রানার্সআপ পিএসজির মুখোমুখি হবে ইংলিশ জায়ান্ট ম্যানচেস্টার সিটি। টানা দ্বিতীয় ফাইনালে উঠতে অনুশীলনে বেশ সিরিয়াস পচেত্তিনো শিষ্যরা। অন্যদিকে, গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের আগে গার্দিওলা শেখাচ্ছেন কীভাবে চাপমুক্ত থেকে ম্যাচ উপভোগ করতে হয়। ফ্রান্সের পার্ক দে প্রিন্সেন্সে ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় বুধবার (২৮ এপ্রিল) রাত ১টায়।

প্যারিসিয়ানদের জন্য অগ্নিপরীক্ষা। যে করেই হোক যেতে হবে ফাইনালে। ঘোচাতে হবে গতবারের আক্ষেপ। পিএসজি কোচ মরিসিও পচেত্তিনোর জন্যও যে এটি চ্যালেঞ্জ। দুই মৌসুম আগে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনাল হারের ক্ষতটা এখনো শুকোয়নি। তখন অবশ্য টটেনহ্যামের কোচ ছিলেন পচেত্তিনো। এবার দায়িত্ব পেয়েই দলকে ফাইনালে উঠিয়ে কাপ জিতেই সেই আক্ষেপ ঘোচাতে চান।টানা দ্বিতীয় ফাইনালে ওঠার আগে সুংবাদ পিএসজি শিবিরে। দলটির নিয়মিত একাদশের কেইলর নাভাস, অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া ও হুয়ান বের্নাতের সঙ্গে চুক্তি নবায়ন করেছে ক্লাবটি। সেই প্রতিদান দিতে চাইবে নিশ্চয়। পচেত্তিনোর জন্য সুখবর দলের গুরুত্বপূর্ণ সব খেলোয়াড়ই ইনজুরিমুক্ত। নেইমার-এমবাপ্পে যুগলবন্দির আক্রমণ সিটিজেনদের করে দিতে পারে তছনছ। তবে হারতে ভুলে যাওয়া ম্যানচেস্টার সিটির জন্য এসবই নস্যি। পিএসজির কোচ মৌরিজিও পচেত্তিনো বলেন, এখন আমরা অভিজ্ঞ, তবে এগোতে হবে ধাপে ধাপে। আমাদের ম্যানচেস্টার সিটিকে হারাতে হবে এবং এটি হবে খুব কঠিন। কারণ ওরা অনেক গোছানো দল।

বার্সেলোনা ও বায়ার্ন মিউনিখকে তাদেরই মাঠে উড়িয়ে সেমিফাইনালে উঠেছে পিএসজি। তারকাবহুল দলটির মুখোমুখি হওয়ার আগে তাই খেলোয়াড়দের চাপমুক্ত রাখতে চান ম্যানচেস্টার সিটির কোচ পেপ গার্দিওলা। চাপ নিও না, উপভোগ করো, সেই মন্ত্রই শোনাচ্ছেন। তবে, এই ম্যাচে দলের দুই গুরুত্বপূর্ণ ফুটবলার সার্জিও আগুয়েরো ও গ্যাব্রিয়েল হেসুসকে শুরুর একাদশে পাচ্ছে না সিটিজেনরা।
ম্যানচেস্টার সিটি কোচ পেপ গার্দিওলা বলেন, ‘আপনি যখন খেলতে যাবেন তখন শুধু খেলার কথা চিন্তা করলে হবে না। যেই গাড়িতে আসবেন, সেই যাত্রাটাকে উপভোগ করতে হবে। যেই হোটেলে থাকবেন, টিমমেটদের সঙ্গে উপভোগ করতে হবে। অনুশীলনেও মজা করতে হবে। তাহলেই চাপ মুক্ত থেকে আসল খেলা বেরিয়ে আসবে। গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের আগে আমি আমার ছেলেদের সেই শিক্ষাই দিচ্ছি।’
ইউরোপ শ্রেষ্ঠত্বের মঞ্চে এর আগে ৩ বারের দেখায় একবার জেতেনি পিএসজি। এবার কার গলায় উঠবে জয় মাল্য? সে জন্য অপেক্ষা আর মাত্র কয়েক ঘণ্টার।