আইপিএল স্থগিত হওয়ায় থমকে গেল বাকি আয়োজনও

2

ডেস্ক রিপোর্টঃ তুমুল সমালোচনার মুখে শুরু হয়েছিল ভারতের সর্ববৃহৎ ক্রিকেটযজ্ঞ আইপিলের ১৪তম আসর। প্রতিদিন যখন হাজার হাজার মানুষ মৃত্যুর মিছিলে সামিল হচ্ছিলেন। ঠিক তখনই কোটি কোটি টাকার এই ক্রীড়াযজ্ঞ অনুষ্ঠিত হচ্ছিল ভারতের ছয়টি ভেন্যুতে। স্থানীয় গণমাধ্যম থেকে শুরু করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তুমুল চর্চা শুরু হওয়ায় শেষ পর্যন্ত স্থগিত হয় বিশ্বের ব্যয়বহুল এই টি-টুয়েন্টি আসর।

তাতেই খুশি কলকাতার ক্রিকেট প্রেমী সাধারণ মানুষ।

এই আসরটি যদি বির্তকের মধ্যেও এগিয়ে যেত, তবে কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে ১০ মের পর থেকে বেশ কিছু ম্যাচ হত। সেই ম্যাচের প্রস্তুতিও প্রায় চূড়ান্ত হয়ে গিয়েছিল। তবে মঙ্গলবার (৪ মে) দুপুরের পর গণমাধ্যমে আইপিলের স্থগিতাদেশ আসায় সেই আয়োজনও থমকে যায়।

ভারতের এই মুহূর্তে প্রতিদিন গড়ে সাড়ে তিন লাখ মানুষ করোনায় সংক্রমিত হচ্ছেন।

প্রতিদিন মারা যাচ্ছেন তিন থেকে সাড়ে তিন হাজার মানুষ।মুম্বাই, দিল্লি উত্তরখণ্ড এমনকি কলকাতার বহু সরকারি বেসরকারি হাসপাতালে কোভিড আক্রান্তদের জন্য পর্যাপ্ত চিকিৎসা নেই, অক্সিজেনের অভাবে মুম্বাই দিল্লিতে মৃত্যু হয়েছে এমন বাস্তবতায় এই আসর বন্ধ হওয়াটাকে ইতিবাচক হিসেবেই দেখছেন কলকাতার ক্রিকেট প্রেমীরা।আগামী ৩০ মে আইপিএলের ফাইনাল ম্যাচ হওয়ার কথা ছিল।

স্থগিত হওয়ার আগ পর্যন্ত আইপিএলের নির্ধারিত ৬০টি ম্যাচের মধ্যে পর্যন্ত ২৯টি ম্যাচ সম্পন্ন করেছিল বিসিসিআই।