ঝাউডাঙ্গায় হতদরিদ্র মানুষের ঈদ উপহার কার্যক্রম শুরু করলেন জয়দেব ঘোষ হতদরিদ্র দেড় শতাধিক মানুষের হাতে ঈদ উপহার ও খাদ্য সামগ্রী তুলে দিলেন জেলা আ.লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী আক্তার

17
বিশেষ প্রতিনিধি : সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ঝাউডাঙ্গায় করোনায় সংকটে থাকা হতদরিদ্র মানুষের মাঝে ঈদ উপহার ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছেন সদর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি ও ঝাউডাঙ্গা ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের সম্ভব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী জয়দেব ঘোষ। মঙ্গলবার (৪ মে) বিকালে ঝাউডাঙ্গা ইউনিয়নের বলাডাঙ্গা গ্রামে (৮নং ওয়ার্ড) ৫০টি হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে ঈদ উপহার ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন। এর আগে সোমবার বিকালে সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদকের উপস্থিতিতে ৭নং ওয়ার্ডের মাধবকাটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে শতাধিক পরিবারে মাঝে উপহার ও খাদ্য সামগ্রী তুলে দিয়ে এই কর্মস‚চি শুরু করেন। ইউনিয়নে করোনায় সংকটে থাকা হতদরিদ্র মানুষের মাঝে ঈদ উপহার ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ কার্যক্রম অব্যহত থাকবে বলে জয়দেব ঘোষ জানিয়েছেন। চেয়ারম্যান প্রার্থী জয়দেব ঘোষের নিজস্ব অর্থায়নে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী আক্তার হোসেন। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মীর মোস্তাক হোসেন, সদর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি এড. ফারুক হোসেন, পৌর আ.লীগ নেতা কাজী ইকবাল, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা তুহিন, ঝাউডাঙ্গা ইউনিয়ন আ.লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অশোক কুমার ঘোষ, ৮নং ওয়ার্ড আ.লীগ সভাপতি ডা. শামসুজ্জামান, আ.লীগ নেতা অনুপ দাস, তাজুল ইসলাম, অরবিন্দ, ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আজিজুর রহমান আজিজ, সদর উপজেলা শেখ রাসেল শিশু কিশোর পরিষদের নেতা ফিরোজ হোসেন, ওলিয়ার রহমান, যুবলীগ নেতা সাইফুল, ফয়জুর রহমানসহ স্থানীয় গণমাণ্য ব্যক্তিবর্গ। উপহার সামগ্রী বিতরণকালে জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী আক্তার হোসেন বলেন, ঈদ মানে আনন্দ। খুশির বার্তা নিয়ে ঈদ আসে আমাদের মাঝে। বর্তমানে করোনা মহামারির মধ্যে হতদরিদ্র মানুষের পাশে দাড়ানোর জন্য ঝাউডাঙ্গা ইউনিয়নের আ.লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী ও সদর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সহসভাপতি জয়দেব ঘোষের এমন মহতি কাজের জন্য ধন্যবাদ জানান। একইসাথে ইউনিয়নবাসীকে জয়দেক ঘোষের পাশে থাকার আহবান জানান। চেয়ারম্যান প্রার্থী জয়দেব ঘোষ বলেন, আমি সারা বছরই এলাকার মানুষের জন্য কাজ করার চেষ্টা করি। শুধু নিজে ভাল থাকলে, ভাল খেলে হবে না। সবার কথা ভাবতে হবে। আর করোনা মহামারি আমাদের চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে মানুষ প্রকৃতির কাছে কত অসহায়। আজীবন চেষ্টা করবো সকলে মিলে এক সঙ্গে থাকতে। তিনি সকলের কাছে আশির্বাদ কামনা করেন।